শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭
হোম > আধুনিকতা

ইসলামী চিন্তার সংস্কার: বিচ্যুতি, প্রগতি, নাকি সময়ের দাবি? (প্রশ্নোত্তর পর্ব ১)

এডিটর’স নোট: ইসলামী চিন্তার সংস্কারের প্রসঙ্গ আসলে প্রায়শই একটা প্রশ্ন উত্থাপিত হয় – সংস্কারের ক্ষেত্রে কোন বিষয়গুলো বিবেচনাযোগ্য, আর কোনগুলো অপরিবর্তনীয়? এক্ষেত্রে অতি উদার কেউ কেউ শরীয়াহর খোলনলচে পাল্টে ফেলতে চান, আবার অতি রক্ষণশীল কেউ কেউ মনে করেন ইসলামে সংস্কারের কোনো ধরনের সুযোগ নেই। এই দুই প্রান্তিক অবস্থানের বাইরে সঠিক পথ

বাকিটুকু পড়ুন

ইউসুফ আল কারযাভী: ইসলাম ও আধুনিকতা (পর্ব ৪)

এডিটর’স নোট: সমসাময়িক বিশ্বে সবচেয়ে প্রভাবশালী ইসলামী স্কলারদের মধ্যে ইউসুফ আল কারযাভী শীর্ষস্থানীয় একজন। কারযাভীকে নিয়ে Yusuf Al-Qaradawi: Islam and Modernity শীর্ষক একটি গবেষণামূলক বই লিখেছেন স্যামুয়েল হেলফন্ট। ২০০৯ সালে তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের মোশে দায়ান সেন্টার থেকে এটি প্রকাশিত হয়। আমরা বইটির অংশবিশেষের ধারাবাহিক অনুবাদ প্রকাশ করছি। অনুবাদ করেছেন আইয়ুব আলী।

বাকিটুকু পড়ুন

ইউসুফ আল কারযাভী: ইসলাম ও আধুনিকতা (পর্ব ৩)

এডিটর’স নোট: সমসাময়িক বিশ্বে সবচেয়ে প্রভাবশালী ইসলামী স্কলারদের মধ্যে ইউসুফ আল কারযাভী শীর্ষস্থানীয় একজন। কারযাভীকে নিয়ে Yusuf Al-Qaradawi: Islam and Modernity শীর্ষক একটি গবেষণামূলক বই লিখেছেন স্যামুয়েল হেলফন্ট। ২০০৯ সালে তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের মোশে দায়ান সেন্টার থেকে এটি প্রকাশিত হয়। আমরা বইটির অংশবিশেষের ধারাবাহিক অনুবাদ প্রকাশ করছি। অনুবাদ করেছেন আইয়ুব আলী।

বাকিটুকু পড়ুন

ইউসুফ আল কারযাভী: ইসলাম ও আধুনিকতা (পর্ব ২)

এডিটর’স নোট: সমসাময়িক বিশ্বে সবচেয়ে প্রভাবশালী ইসলামী স্কলারদের মধ্যে ইউসুফ আল কারযাভী শীর্ষস্থানীয় একজন। কারযাভীকে নিয়ে Yusuf Al-Qaradawi: Islam and Modernity শীর্ষক একটি গবেষণামূলক বই লিখেছেন স্যামুয়েল হেলফন্ট। ২০০৯ সালে তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের মোশে দায়ান সেন্টার থেকে এটি প্রকাশিত হয়। আমরা বইটির অংশবিশেষের ধারাবাহিক অনুবাদ প্রকাশ করছি। অনুবাদ করেছেন আইয়ুব আলী।

বাকিটুকু পড়ুন

ইউসুফ আল কারযাভী: ইসলাম ও আধুনিকতা (পর্ব ১)

এডিটর’স নোট: সমসাময়িক বিশ্বে সবচেয়ে প্রভাবশালী ইসলামী স্কলারদের মধ্যে ইউসুফ আল কারযাভী শীর্ষস্থানীয় একজন। কারযাভীকে নিয়ে Yusuf Al-Qaradawi: Islam and Modernity শীর্ষক একটি গবেষণামূলক বই লিখেছেন স্যামুয়েল হেলফন্ট। ২০০৯ সালে তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের মোশে দায়ান সেন্টার থেকে এটি প্রকাশিত হয়। আমরা বইটির অংশবিশেষের ধারাবাহিক অনুবাদ প্রকাশ করছি। অনুবাদ করেছেন আইয়ুব আলী।

বাকিটুকু পড়ুন